Home > স্বাস্থ্য > উচ্চ কোলেস্টেরলের সমস্যা বুঝবেন যেভাবে

উচ্চ কোলেস্টেরলের সমস্যা বুঝবেন যেভাবে

অস্বাস্থ্যকর খাদ্যাভ্যাস এবং জীবনধারা অনেক রোগের কারণ হতে পারে, তাই স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা স্বাস্থ্যকর জীবনধারা বজায় রাখার জন্য এই দুটি বিষয়ের প্রতি সবচেয়ে বেশি মনোযোগ দেওয়ার পরামর্শ দেন। নিঃসন্দেহে ভাজা, জাঙ্ক, মশলাদার, প্রক্রিয়াজাত খাবার খেতে মজাদার মনে হলেও তা আমাদের স্বাস্থ্যের জন্য সবচেয়ে ক্ষতিকর। এই সমস্ত জিনিসগুলি কেবল স্থূলতা বাড়ায় না, তবে এগুলি আপনার কোলেস্টেরলের মাত্রাও বাড়িয়ে তুলতে পারে। উচ্চ কোলেস্টেরল হৃদরোগ এবং স্ট্রোকের ঝুঁকি বাড়ায়। কোলেস্টেরল বেড়ে গেলে আমাদের শরীরে কিছু পরিবর্তন দেখা যায়, সেগুলোকে অবহেলা করতে ভুল করবেন না।

এটি একটি মোমের মতো পদার্থ যা দেহে কোষের ঝিল্লি, কিছু হরমোন এবং ভিটামিন ডি তৈরির জন্য প্রয়োজনীয়।

কোলেস্টেরল দুই প্রকার- এলডিএল কোলেস্টেরল এবং এইচডিএল কোলেস্টেরল। এলডিএল কোলেস্টেরলকে খারাপ হিসাবে বিবেচনা করা হয় কারণ এটি শরীরের সমস্ত সমস্যার মূল কারণ যখন এইচডিএল কোলেস্টেরল ভাল এবং শরীরের অনেক কাজে সাহায্য করে।

শরীরে কোলেস্টেরলের পরিমাণ বেড়ে গেলে হাঁটার সময় ক্লান্তি অনুভূত হয়। সেই সঙ্গে শুরু হয় শ্বাসকষ্টের সমস্যা।

কোলেস্টেরল বেশি হলে বুকে ব্যথার সমস্যা হতে পারে, কারণ কোলেস্টেরল বেশি হলে তা আমাদের ধমনীতে জমে। এতে শ্বাস নিতে অসুবিধা হতে পারে। এছাড়াও, এটি হার্টের ক্ষতি করতে পারে এবং আপনি হার্ট অ্যাটাক বা স্ট্রোকের ঝুঁকিতে থাকতে পারেন।

বমি বমি ভাব উচ্চ কোলেস্টেরলের একটি সাধারণ লক্ষণ। যা ধমনীতে ব্লকেজের কারণে হতে পারে। আপনার যদি প্রায়ই এমন মনে হয়, তাহলে বুঝবেন আপনার কোলেস্টেরলের মাত্রা বেড়ে গেছে।

কোলেস্টেরল বেড়ে গেলে হাত ও পায়ে অসাড়তা অনুভূত হয়, কারণ এটি বেশি হলে হাত ও পায়ের ধমনীকে ব্লক করে দেয়, যার কারণে হাত ও পা প্রায়শই অসাড় হয়ে যায়।

আরও পড়ুনঃ পোস্ট-ট্রমাটিক স্ট্রেস ডিসঅর্ডার’ এর লক্ষণ ও কারণ জেনে নিন

Leave a Reply