Home > খেলার সংযোগ > হাথুরুকে বাদ দিতে লিগ্যাল নোটিশ; তামিমকে দলে নেয়ার আহ্বান

হাথুরুকে বাদ দিতে লিগ্যাল নোটিশ; তামিমকে দলে নেয়ার আহ্বান

জাতীয় দলের প্রধান কোচ চান্ডিকা হাথুরুসিংহেকে অব্যাহতি দিয়ে তামিম ইকবালকে বিশ্বকাপের দলে নিতে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সভাপতি, প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও প্রধান নির্বাচককে লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়েছে বাংলাদেশ ক্রিকেট সাপোর্ট গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক আবদুল্লাহ আল মামুন।

আজ বুধবার পাঠানো নোটিশে সাত দিনের মধ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী আল মামুন রাসেলের মাধ্যমে লিগ্যাল নোটিশটি পাঠানো হয়েছে।

লিগ্যাল নোটিশে বলা হয়, হাথুরুসিংহে একজন অযোগ্য কোচ, যে কিনা নিজ দেশ থেকে বিতাড়িত হয়েছেন। যার ওয়ানডে খেলার অভিজ্ঞতা মাত্র ৩৫টি। গড় ছিল মাত্র ২০.৯০। বাংলাদেশের কোচ হওয়ার আগে অন্য কোনো দেশের পূর্ণাঙ্গ কোচ হওয়ার অভিজ্ঞতাও ছিল না তার। তাকে বাংলাদেশের হেড কোচ করা হয়েছে হয়তো কোনো মহলের কমিশনের স্বার্থ উদ্ধারের জন্য এবং দেশের ক্রিকেটকে শেষ করার জন্য।

কারণ, উনি কোচ হওয়ার পর থেকেই সিনিয়র প্লেয়ারদের ছুড়ে ফেলে দিয়েছেন। যে পঞ্চপাণ্ডবের হাত ধরে দেশের ওডিআই র‌্যাঙ্কিং ৫ নম্বরে ছিল, সেই পঞ্চপাণ্ডবকে দল থেকে বাদ দেয়ার জন্য উদ্যোগ গ্রহণ করেন। এই বছরে তার নেতৃত্বে ৫টি ওডিআই সিরিজে আয়ারল্যান্ড ছাড়া বাকি সব সিরিজেই বাংলাদেশ পরাজিত হয়েছে। সর্বশেষ ইংল্যান্ড, আফগানিস্তান ও নিউজিল্যান্ডের কাছে ঘরের মাটিতে পরাজিত হয়েছে।

নোটিশে আরও বলা হয়, আমার ক্লায়েন্ট মনে করেন যে, ওয়ানডেতে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ও ম্যাচসংখ্যায় দ্বিতীয় সেরা অভিজ্ঞ খেলোয়াড় তামিম ইকবাল। তার জায়গা হলো না বাংলাদেশের বিশ্বকাপ দলে। এটি একটি ষড়যন্ত্র। এশিয়া কাপে ভরাডুবি হয়েছে এবং সবচেয়ে বেশি ভুগিয়েছে ওপেনিং। নতুন প্লেয়ার তানজিম তামিমকে এই বড় মঞ্চে ওঠানো ঠিক হবে না; বরং অভিজ্ঞ তামিম ইকবালই ঠিক।

একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে তামিমের টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টিতে সেঞ্চুরি রয়েছে। তামিম ইকবাল বাংলাদেশের ওয়ানডে ফরম্যাটে সবচেয়ে বেশি ১৪টি সেঞ্চুরির মালিক। লর্ডসর অনার বোর্ডে একমাত্র বাংলাদেশি সেঞ্চুরিয়ান হিসেবে তামিম ইকবালের নাম আছে। ঘরের মাটিতে তার গড় ৩৭, ঘরের বাইরে ৩৫-এর মতো। দুই জায়গায়ই সমান সাতটি করে সেঞ্চুরি আছে তামিমের। সংতরাং আনফিট অজুহাতে অভিজ্ঞ তামিমকে দলে না রাখা কোচ ও অধিনায়কের ব্যক্তিগত আক্রোশই দায়ী।

নোটিশে আরও বলা হয়, নিউজিল্যান্ডের অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনও কিন্তু পরিপূর্ণ ফিট নন, তারপরও তাকে দলে রাখা হয়েছে। প্রথম দুই ম্যাচ খেলবেন না। পরবর্তী ম্যাচগুলো খেলবেন। অন্য দেশে অভিজ্ঞতার দাম দেয়া হয়, তাহলে আমাদের দেশে নয় কেন?

এসব বিষয় বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীদের জন্য চরম মানসিক যন্ত্রণার কারণ হয়ে দাঁড়াচ্ছে বলে নোটিশে উল্লেখ করা হয়। এ অবস্থায় হাথুরুসিংহের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ এবং তামিম ইকবালকে জাতীয় দলে অন্তর্ভুক্ত করে বিশ্বকাপে পাঠানোর জন্য অনুরোধ করা হয়। নোটিশ পাওয়ার সাত দিনের মধ্যে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য বলা হয়েছে।

আরও পড়ুনঃ যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বাংলাদেশের পোশাক রফতানি এক তৃতীয়াংশ কমেছে

Leave a Reply