Home > দেশ সংযোগ > সন্ধ্যায় ঘূর্ণিঝড়, বৃহস্পতিবার প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে ‘মোখা’

সন্ধ্যায় ঘূর্ণিঝড়, বৃহস্পতিবার প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে রূপ নিতে পারে ‘মোখা’

মুঠোফোনে ঘূর্ণিঝড়ের অবস্থান ও গতিপথ দেখবেন যেভাবে

দক্ষিণপূর্ব বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত নিম্নচাপটি আজ বুধবার সন্ধ্যায় ঘূর্ণিঝড় “মোখায়” রূপ নিতে পারে। যা বৃহস্পতিবার সকালের মধ্যে পরিণত হতে পারে প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে।

বুধবার ভারতের আবহাওয়া বিভাগের (আইএমডি) বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস।

আইএমডির এই বুলেটিনে বলা হয়েছে, দক্ষিণ-পূর্ব বঙ্গোপসাগরের নিম্নচাপটি প্রতি ঘণ্টায় ৫ কিলোমিটার গতিতে (গত ছয় ঘণ্টায়) পশ্চিম-উত্তর-পশ্চিম দিকে সরে গিয়ে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে।

এটি কিছু সময়ের জন্য উত্তর-পশ্চিম দিকে ও তারপর উত্তর-উত্তর-পশ্চিম দিকে অগ্রসর হওয়ার এবং বুধবার সন্ধ্যার দিকে একই অঞ্চলে ধীরে ধীরে ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। নিম্নচাপটি ধীরে ধীরে আরও ঘনীভূত হয়ে বৃহস্পতিবার সকালের মধ্যে প্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হতে পারে।

এদিকে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতর জানিয়েছে, দক্ষিণপূর্ব বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত নিম্নচাপটি ঘণীভূত হয়ে একই এলাকায় গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে। এটি বৃহস্পতিবার সকাল ৬টায় চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ৫৫০ কিলোমিটার দক্ষিণে, কক্সবাজার সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ৪৭০ কিলোমিটার দক্ষিণে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ৫৫০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপূর্বে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ৫০৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণপূর্বে অবস্থান করছিল।

গভীর নিম্নচাপকেন্দ্রের ৪৮ কিলোমিটার এর মধ্যে বাতাসের একটানা সর্বোচ্চ গতিবেগ ঘণ্টায় ৫০ কিলোমিটার, যা দমকা অথবা ঝোড়ো হাওয়ার আকারে ৬০ কিলোমিটার পর্যন্ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। গভীর নিম্নচাপ কেন্দ্রের নিকটবর্তী এলাকায় সাগর উত্তাল রয়েছে। এজন্য চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে ১ নম্বর দূরবর্তী সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।

অন্যদিকে আশঙ্কা করা হচ্ছে, তীব্র গতি নিয়ে ‘মোখা’ নামের সম্ভাব্য ঝড়টি চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার জেলার ওপর দিয়ে স্থলভাগে আঘাত হানতে পারে।

সূত্রঃ বাসস

আরও পড়ুনঃ লেখিকাকে যৌন নিপীড়ন মামলায় দোষী সাব্যস্ত ট্রাম্প

Leave a Reply