Home > স্বাস্থ্য > ফ্যাটি লিভার থেকে হতে পারে ক্যান্সার

ফ্যাটি লিভার থেকে হতে পারে ক্যান্সার

লিভার আমাদের শরীরের একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ। এটি পিত্ত রস উৎপন্ন করে এবং আমাদের হজমে সাহায্য করে। এটি আমাদের শরীরে তৈরি টক্সিন দূর করতেও সাহায্য করে। তাই লিভারের যত্ন নেওয়া খুবই জরুরী তবে জীবনযাত্রার পরিবর্তনের কারণে লিভার সংক্রান্ত অনেক সমস্যার সম্মুখীন হতে হতে পারে। এর মধ্যে সবচেয়ে সাধারণ রোগ হল ফ্যাটি লিভার।

ফ্যাটি লিভার এমন একটি সমস্যা যাতে লিভারে চর্বি জমে। এর জন্য অনেক ঝুঁকির কারণ থাকতে পারে যেমন স্থূলতা, ডায়াবেটিস, উচ্চ কোলেস্টেরল, খারাপ জীবনধারা ইত্যাদি। ফ্যাটি লিভারের সময়মতো চিকিৎসা না করালে লিভার ফেইলিওর এবং লিভার ক্যান্সারের মতো সমস্যা হতে পারে। জন্ডিস, পেটে ব্যথা, ক্লান্তি, পেট ফুলে যাওয়া, ক্ষুধা কমে যাওয়া, বমি হওয়া, ওজন কমে যাওয়া ফ্যাটি লিভারের কিছু লক্ষণ হতে পারে। এই সমস্যাগুলির মধ্যে কোনটি দেখা দিলে অবিলম্বে আপনার ডাক্তারের সাথে পরামর্শ করুন এবং পরীক্ষা করুন। ফ্যাটি লিভারের সমস্যাকে দূরে রাখতে, আপনি নীচে দেওয়া জীবনধারার কিছু পরিবর্তন অবলম্বন করতে পারেন।

প্রতিদিন ব্যায়াম করলে লিভারের স্বাস্থ্য ভালো থাকে। ব্যায়াম ওজন কমাতে সাহায্য করে, যা লিভারের চর্বি কমাতে সাহায্য করতে পারে। তাই আপনার পছন্দ অনুযায়ী যেকোনো ব্যায়াম করুন।

ডায়েট আপনার জীবনের মানকে প্রভাবিত করে, তাই একটি সুষম খাদ্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আপনার খাদ্যতালিকায় ভিটামিন, রুগেজ, প্রোটিন, ক্যালসিয়াম, কার্বোহাইড্রেট ইত্যাদি অন্তর্ভুক্ত করুন। বেশি ভাজা খাবার, অ্যালকোহল, চিনি ইত্যাদি খাওয়া থেকে বিরত থাকুন। এগুলো আপনার লিভারের পাশাপাশি আপনার সামগ্রিক স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকর।

অতিরিক্ত ওজন ফ্যাটি লিভারের কারণ হতে পারে, তাই স্বাস্থ্যকর ওজন বজায় রাখা খুবই গুরুত্বপূর্ণ । তাই প্রতিদিন ব্যায়াম করুন এবং স্বাস্থ্যকর খাবার গ্রহণ করুন।

অ্যালকোহল পান করলে লিভারে চর্বি জমতে পারে, যা লিভারের টিস্যুর ক্ষতি করতে পারে। এটি ভবিষ্যতে লিভার সিরোসিসের কারণ হতে পারে, তাই অ্যালকোহল সেবন এড়িয়ে চলুন।

আরও পড়ুনঃ যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বাংলাদেশের পোশাক রফতানি এক তৃতীয়াংশ কমেছে

Leave a Reply