Home > অর্থ-বাণিজ্য > চলতি অর্থবছরে জিডিপি ৫.৬ শতাংশ প্রবৃদ্ধির আভাস বিশ্বব্যাংকের

চলতি অর্থবছরে জিডিপি ৫.৬ শতাংশ প্রবৃদ্ধির আভাস বিশ্বব্যাংকের

উল্লেখযোগ্য অর্থনৈতিক উন্নয়ন করেছে : বিশ্বব্যাংক

চলতি ২০২৩-২৪ অর্থবছর বাংলাদেশের মোট দেশজ উৎপাদন বা জিডিপি প্রবৃদ্ধি কমে ৫.৬ শতাংশ হতে পারে বলে আভাস দিয়েছে বিশ্বব্যাংক। এর আগে ২০২১-২২ অর্থবছরে ৭.১ শতাংশ ও ২০২২-২৩ অর্থবছরে ৬ শতাংশ প্রবৃদ্ধির পূর্বাভাস দিয়েছিল বিশ্বব্যাংক।

আজ মঙ্গলবার রাজধানীতে নিজেদের কার্যালয়ে বাংলাদেশ ডেভেলপমেন্ট আপডেট’ শীর্ষক একটি প্রতিবেদনর বিস্তারিত তুলে ধরার সময় জিডিপি পূর্বাভাসের বিষয়ে জানান, চলতি অর্থবছরের শেষে বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি হবে ৫.৬ শতাংশ। আগামী অর্থবছরে যা বেড়ে দাঁড়াবে ৫.৮ শতাংশ। যদিও গত এপ্রিলে জিডিপি ৬.২ শতাংশ প্রবৃদ্ধির আভাস দিয়েছিল সংস্থাটি।

এসময় বাংলাদেশ ও ভুটানে বিশ্বব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর আবদৌলায়ে সেক জানান, কোভিড-১৯ মহামারি থেকে শক্তিশালী পুনরুদ্ধার করেছে বাংলাদেশ। কিন্তু ক্রমবর্ধমান মুদ্রাস্ফীতি, আর্থিক খাতের দুর্বলতা, বাহ্যিক চাপ এবং বৈশ্বিক অর্থনৈতিক অনিশ্চয়তার কারণে মহামারি পরবর্তী পুনরুদ্ধার ব্যাহত হয়েছে। যা জিডিপির প্রবৃদ্ধিতে নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে।

তবে আগামী অর্থবছর জিডিপির প্রবৃদ্ধি আবার বাড়তে শুরু করবে বলে মনে করে সংস্থাটি। কিন্তু সেজন্য আর্থিক খাতে নীতি সংস্কারের তাগিদ গিয়েছে তারা।
এক্ষেত্রে সুদ ও বৈদেশিক মুদ্রার বিনিময় হারকে প্রকৃত অর্থে বাজারনির্ভর করার পরামর্শ দিয়েছে বিশ্বব্যাংক।

এদিকে, মূল্যস্ফীতি বাড়ার কারণ হিসেবে বিশ্বব্যাংকের প্রতিবেদনে বলা হয়, চার কারণে বাংলাদেশে মূল্যস্ফীতি বেড়েছে। অভ্যন্তরীণ জ্বালানির মূল্য বেড়ে যাওয়া, দুর্বল মুদ্রানীতি, টাকার অবমূল্যায়ন ও বৈদেশিক মুদ্রা কমে যাওয়ায় আমদানিও কমেছে।

আরও পড়ুনঃ নতুন ভবন উদ্বোধন, শিক্ষার্থীকে পাঠে আগ্রহী করবে প্রগতি গ্রন্থাগার

Leave a Reply