Home > স্বাস্থ্য > ক্যান্সার চিকিৎসায় আয়ুর্বেদিক পদ্ধতিতে মিলছে সাফল্য

ক্যান্সার চিকিৎসায় আয়ুর্বেদিক পদ্ধতিতে মিলছে সাফল্য

আদি চিকিৎসা পদ্ধতি যুগে যুগে নানা বৈদ্যের অভিজ্ঞতার ছোঁয়ায় আধুনিক ও কার্যকরি রূপ পেলেও অনেক রোগের সমাধান এখনো ধরাছোঁয়ার বাইরে। তেমনই এক ব্যাধি ক্যান্সার! আধুনিক চিকিৎসা পদ্ধতিতে এ রোগের নিরাময় যতটা এগিয়েছে ততটা রয়েছে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও। তাই দেশে-বিদেশে চিকিৎসকরা এখন ফিরে দেখছেন চিকিৎসাশাস্ত্রের আদি সংস্করণগুলোতে। বিশ্বজুড়ে গবেষণা চলছে, ক্যান্সার নিরাময়ে আর্য়ুবেদ ও হোমিওপ্যাথিসহ অন্যান্য শাস্ত্রে কি সমাধান রয়েছে?

মরণব্যাধি ক্যান্সার চিকিৎসায় কাজ করছেন আয়ুর্বেদিক চিকিৎসক ডা. মো. অসীম । নূর-মজিদ আয়ুর্বেদিক কলেজে কর্মরত এই গবেষণা ও উৎপাদন কর্মকর্তা জানান, অলটারনেটিভ মেডিসিন (আয়ুর্বেদ) চিকিৎসা পদ্ধতিতে ইতোমধ্যে বেশকিছু ক্যান্সারে আক্রান্ত ব্যক্তি সুস্থ ও স্বাভাবিক জীবনে ফিরেছেন। বর্তমানে চিকিৎসাধীন ডায়াগনোসিসে তাদের অবস্থার উন্নতি লক্ষ্য করা গেছে।

ডা. অসীম বলেন, ‘প্রাচীন আয়ুর্বেদিক ফর্মুলায় তৈরি ওষুধগুলোর ব্রাইন শ্রিম্প ট্রায়ালে সর্বনিম্ন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ায় সর্বোচ্চ ফলাফল দেখা গেছে। ব্রাইন শ্রিম্প ট্রায়াল-এর মাধ্যমে সেল সাইটো-টক্সিসিটি চেক করে তার ডেটা এনালাইসিসও করা হয়েছে।’

আর এ গবেষণায় তার সঙ্গে যুক্ত আছেন আয়ুর্বেদিক গবেষক, বায়োটেকনোলোজিস্ট, ফার্মাসিস্ট, কেমিস্ট ও সংশ্লিষ্টব্যক্তিরা। এছাড়াও ব্যক্তিগত উদ্যোগে তিনি বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণাগারে যোগাযোগ করে ওষুধগুলো নিয়ে আধুনিক গবেষণার কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন।

তিনি জানান, সরকারি সহযোগিতায় উচ্চতর গবেষণা হলে আধুনিক ডোজেজ পদ্ধতি বের করা সম্ভব। আর ওষুধগুলো সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক উপাদানে প্রস্তুত হওয়ায় এর পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই বললেই চলে, পাশাপাশি এটি শুধু আক্রান্ত কোষগুলোকেই টার্গেট করে ধ্বংস করে, আধুনিক চিকিৎসায় যাকে টার্গেটেড থেরাপি বলা হয়ে থাকে। ফলে রোগী দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠছেন।

তার আর্য়ুবেদিক চিকিৎসায় সম্প্রতি বেশ কয়েকজন ক্যান্সার রোগী সুস্থ হয়েছেন বলে জানান ডা. অসীম। তিনি বলেন, চিকিৎসা শুরুর তিন থেকে ছয় মাসের মধ্যে সুস্থ জীবনে ফিরছেন অধিকাংশ রোগী। ওষুধ সেবনের এক মাসের মধ্যেই ক্যান্সারজনিত নানা উপসর্গ যেমন জ্বর, ব্যথা, বমি, আক্রান্ত স্থানের ঘা ইত্যাদির উন্নতি লক্ষ্য করা গেছে। তিনি ক্যান্সারের পাশাপাশি ডায়াবেটিক, লিভার ও কিডনী জনিত নানান রোগের নিয়মিত চিকিৎসা দিয়ে থাকেন।

ডা. অসীম জানান, প্রাচীন এই আয়ুর্বেদিক ফর্মুলার ওষুধগুলোর ওপর দরকার আরও বিস্তর গবেষণা । এ ওষুধগুলো ক্যান্সার চিকিৎসায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

প্রয়োজনে: ডা. মো. অসীম; ফোন: +880 1737 538 547; ওয়েব: doctorwasim.com

আরও পড়ুন:

১২০ বছর বাঁচবে মানুষ

হঠাৎ ওজন কমাও ক্ষতিকর

Leave a Reply